পাইলস থেকে মুক্তির উপায়

পাইলস বা হেমোরয়েড পরিচিত এবং জটিল একটি রোগ। এটি এমন একটি রোগ আপনি যতই শান্তিতে থাকেন না কেন, যদি কখনো পাইলস আপনাকে গ্রাস করে তখন এর থেকে যন্ত্রণাদায়ক শাস্তি আর কিছু হতেই পারেনা। তাই পাইলস বিভিন্ন কারনে হতে পারে যেমন আমরা বলতে পারি যে, দীর্ঘ সময় বসে থাকা, কোষ্ঠকাঠিন্য, মলদ্বারে জালাপোড়া করা, মলদ্বার দিয়ে রক্ত যাওয়া এবং বিভিন্ন শারীরিক সমস্যা থেকে ও হতে পারে। এটি কখনো টা অপারেশন এর মাধ্যমে ভাল হয়। অথবা কিছু ঘরোয়া নিয়ম – কানুন মানার দরুন এর থেকে মুক্তি পাওয়া যেতে পারে।

piles, pain, toilet, bleeding

পাইলস হওয়ার কারন সমূহঃ

  • দীর্ঘ মেয়াদী কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা থেকে হতে পারে।
  • দীর্ঘ সময় দাড়িয়ে থাকা থেকে হতে পারে।
  • দীর্ঘ সময় বসে থাকা থেকে হতে পারে
  • মল ত্যাগের সময় অতিরিক্ত চাপ প্রয়োগের মাধ্যমে হতে পারে।
  • গর্ভাবস্থায় হতে পারে।
  • পর্যাপ্ত ঘুম না হওয়া
  • পানি কম খাওয়া
  • শাক সবজি ফলমূল না খাওয়া
  • বংশগত কারনে পাইলস হতে পারে।
  • দীর্ঘ কাশির সমস্যা থেকে ও পাইলস হতে পারে।
  • পেশাবে যন্ত্রণা থেকে ও পাইলস হতে পারে।
  • সঠিক সময়ে কৃমির ঔষধ না খাওয়া, কেননা অনেক সময় কৃমির কারনেও পাইলস হয়ে থাকে।




piles, pain, toilet, bleeding

পাইলস এর লক্ষন সমূহঃ

  • মলত্যাগ করার সময় পায়ুপথে তীব্র ব্যথা হতে পারে।
  • মলত্যাগ এর সময় কাঁটা যুক্ত কিছু বিধে আছে এমন মনে হতে পারে।
  • মলত্যাগ ঠিক মত শেশ করত্র না পারা।
  • ব্যথা বা টাটানি অনুভূতি হওয়া
  • মলদ্বারে চুলকানি বা ব্যথা অনুভূত হতে পারে।

 piles, pain, toilet, bleeding  পাইলস রোগ এর চিকিৎসা

পাইলস এর সমস্যা নিয়ে হরেক রকম কবিরাজি বা হাতুড়ে চিকিৎসার প্রচলন রয়েছে, এর থেকে বিরত থাকা। স্বাস্থ্য সম্মত ডাক্তার এর পরামর্শ নিয়ে কাজ করা। এমন খাদ্য না খাওয়া যেটি খেলে হজমে সমস্যা হয়। সর্বদা নরম খাবার খাওয়ার চেষ্টা করা।

 piles, pain, toilet, bleeding



পাইলস প্রতিরোধের উপায় সমূহঃ

  • নিয়মিত ঘুমানো, একটা মানুষের সর্ব নিম্ন ৬ ঘন্টা ঘুম হওয়া উচিৎ।
  • ডাক্তার এর পরামর্শ অনুযায়ী নিয়মিত কৃমির ঔষধ খাওয়া।
  • প্রতিদিন গোসল করা।
  • শাক সবজি এবং আঁশ যুক্ত খাবার বেশি করে খাওয়া।
  • সর্বদা পেটের জন্য নরম খাবার খাওয়া।
  • অতিরিক্ত ঝাল বা মসলা যুক্ত খাবার বর্জন করা।
  • মাত্রাতিরিক্ত পরিশ্রম না করা।
  • মলত্যাগ এর সময় অতিরিক্ত চাপ প্রয়োগ না করা।
  • গমের রুটি খাওয়া খুবি উত্তম।
  • প্রচুর পরিমাণে পানি পান করা।

piles, pain, toilet, bleeding

পরিশেষে বলা যায় যে, পাইলস থেকে মুক্তি পাবার জন্য সর্বদা শাক সবজি ফলমূল বেশি বেশি খেতে হবে। মাছ, মাংশ, চর্বি যুক্ত খাবার পরিমাণ মত খাওয়া। অতি মাত্রায় কোন জিনিষ এই সুফল বয়ে আনে না। তাই নিয়মিত খাবারের আগে পানি পান করা, এবং খাবারের প্রায় ২০ মিনিট পরে পানি পান করা। ইত্যাদি বিষয় গুলো মেনে চললেই আশা করি সবাই পাইলস থেকে বেঁচে থাকা সম্ভব।

কি করলে  আমারা  আমাদের পোস্ট আরও ভাল করতে পারি এই বিষয়ে অবশ্যই মতামত প্রকাশ

করবেন। আরও কি টাইপের পোস্ট বা ক্যটাগরি আমরা যুক্ত করতে পারি এই বিষয়ে যদি মতামত

থাকে তাও ব্যাক্ত করার অনুরোধ রইল।

ধন্যবাদ।

No Responses

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *