জেনে নিন স্ট্রবেরী এর যত পুষ্টিগুণ ও উপকারিতা

জেনে নিন স্ট্রবেরী এর যত পুষ্টিগুণ ও উপকারিতা

স্ট্রবেরী- যার আদি বাস ইতালির রোমে। যে ফলটি এখন সারাবিশ্বে চাষ হচ্ছে, এমনকি বাংলাদেশেও। স্ট্রবেরি ৬০০ ধরনের হয়ে থাকে। স্ট্রবেরি অন্যান্য ফল এর তুলনায় দেখতে অনেক সুন্দর তেমনি স্বাদেও অতুলনীয়। এছাড়াও এর পুষ্টিগুণ অনেক। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, ম্যাঙ্গানিজ, পটাশিয়াম, সোডিয়াম, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ইত্যাদি।

জেনে নিন স্ট্রবেরির যত পুষ্টিগুণ ও উপকারিতা

জেনে নিন স্ট্রবেরির যত পুষ্টিগুণ ও উপকারিতা – shusthodeho.net



স্ট্রবেরী খুব সুস্বাদু একটি ফল। স্ট্রবেরী গাছ থানকুনি বা আলুর গাছের মত দেখতে। এই গাছের পাতা অনেক বড় এবং চওড়া আকৃতির হয়। নভেম্বরের মাঝামঝি সময়ে এই গাছে ফুল ধরে এবং ডিসেম্বর থেকে মার্চ পর্যন্ত ফল পাওয়া যায়। এই গাছের গড় উচ্চতা হয় প্রায় ৩০ সেমি. এবং বিস্তার হয় প্রায় ৪৫-৫০ সেমি.। গাছ প্রতি গড়ে প্রায় ৩২টি ফল ধরে। যার ওজন প্রায় ৪৫০ গ্রাম এর মতো। এই ফল টুকটুকে লাল, ত্বক নরম, একটু খসখসে এবং স্বাদ টক-মিষ্টি ধরনের হয়ে থাকে। স্ট্রবেরী ফল যখন কাঁচা অবস্থায় থাকে, তখন এর রং হয় সবুজ এবং যখন পাকা অবস্থায় থাকে, তখন এর রং হয় টকটকে লাল। ফলের সংরক্ষণ কাল খুবই কম থাকায় সংরক্ষনের পর টিস্যু পেপার দিয়ে মুড়িয়ে প্লাস্টিকের ঝুড়ি বা ডিমের খাচিতে সাজানো হয়, যাতে করে ফল নষ্ট না হয়ে যায়। স্ট্রবেরীর প্রতি কেজির মূল্য ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা। তবে বর্তমানে ঢাকার বিভিন্ন সুপার মার্কেটগুলোতে বিদেশ থেকে আমদানি হয়ে আসা স্ট্রবেরীর প্রতি কেজির মূল্য ১ হাজার থেকে দেড় হাজার টাকা।

জেনে নিন স্ট্রবেরির যত পুষ্টিগুণ ও উপকারিতা

জেনে নিন স্ট্রবেরির যত পুষ্টিগুণ ও উপকারিতা – shusthodeho.net



স্ট্রবেরী এর উপকারিতা

স্ট্রবেরী বহু গুনে গুণান্বিত। এই ফল এর স্বাস্থ্য উপকারিতাগুলো নিয়ে আজকে আলোচনা করা হল-

১. হার্টের রোগ

হার্ভার্ডের গবেষণায় পাওয়া যায় যে, স্ট্রবেরীতে রয়েছে ফ্ল্যাভনোয়েডের একটি শ্রেণী যা হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি হ্রাস করে। স্ট্রবেরি খেলে হরমোসিসস্টাইনের মাত্রা কমে যায়। স্ট্রবেরি মধ্যে আরও রয়েছে ফাইবার এবং পটাসিয়াম যা হার্ট এর জন্য অনেক উপকারী।

২. স্ট্রোক

অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস কোরেস্টিটিন, কাম্পফেরোল, এবং অ্যানথোকিয়ানিন সমস্ত স্ট্রোকের সাথে যুক্ত ক্ষতিকারক রক্ত গোষ্ঠীর গঠনকে কমাতে সাহায্য করে স্ট্রবেরী। উচ্চ পটাসিয়াম খেলে স্ট্রোক এর ঝুঁকি হ্রাস পায়।

৩. ক্যান্সার

স্ট্রবেরি মধ্যে শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস আছে যা র্যাডিকেল এর বিরুদ্ধে কাজ করে। শরীরের ইনজেকশনের টিউমার বৃদ্ধি হ্রাস করে

৪. রক্তচাপ

উচ্চ পটাসিয়াম থাকার কারণে স্ট্রবেরি শরীরের মধ্যে সোডিয়াম এর প্রভাব নিরস্ত করে। ফলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনে সাহায্য করে এই সুস্বাদু ফলটি।

৫. ডায়াবেটিস

ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য স্ট্রবেরি খুব উপকারী। স্ট্রবেরি ফাইবারের উচ্চতা, যা রক্তের শর্করার নিয়ন্ত্রণ করে এবং চরম উচ্চ ও নিম্নচাপ স্থিতিশীল রাখতে সাহায্য করে।

৬. গর্ভাবস্থা

স্ট্রবেরি ফোলিক অ্যাসিডের একটি বড় উৎস। নবজাতকের নৃতাত্ত্বিক ত্রুটিগুলি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য গর্ভবতী নারীদের জন্য পর্যাপ্ত ফোলিক অ্যাসিড খাওয়া অপরিহার্য।

৭. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি

স্ট্রবেরীতে আছে প্রচুর ভিটামিন সি যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

৮. ত্বকের জন্য স্ট্রবেরি

স্ট্রবেরীতে ভিতামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আছে যা ত্বককে বিভিন্ন ক্ষতিকর উপাদান থেকে রক্ষা করে।

৯. চুল পড়া নিয়ন্ত্রন করে

নিয়মিত স্ট্রবেরী খেলে চুল পড়া কমে যাবে, কারন স্ট্রবেরীতে রয়েছে ফলিক এসিট, এল্লাজি এসিড, ভিটামিন বি ৫ ও ভিটামিন বি ৬ যা চুল পড়া নিয়ন্ত্রন করে এবং চুলকে গোড়া থেকে শক্ত করে।

১০. ওজন হ্রাস

স্ট্রবেরী ওজন কমাতে সাহায্য করে। এক কাপ স্ট্রবেরীতে আছে প্রায় ৫৩ ক্যালরী এবং স্ট্রবেরী খেলে অনেকক্ষন পেট ভরা থাকে। তাই স্ট্রবেরী ওজন কমাতে সাহায্য করে।

জেনে নিন স্ট্রবেরির যত পুষ্টিগুণ ও উপকারিতা

জেনে নিন স্ট্রবেরির যত পুষ্টিগুণ ও উপকারিতা – shusthodeho.net

স্ট্রবেরী এর পুষ্টি

নিম্নলিখিত পরিমাণে স্ট্রবেরিতে গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি উপাদান রয়েছে-

  • ক্যালোরি: ৫৩ কিলোবাইল
  • প্রোটিন: ১.১১ গ্রাম
  • কার্বোহাইড্রেট: ১২.৭৫ গ্রাম
  • খাদ্যতালিকাগত ফাইবার: ৩.৩ গ্রাম
  • ক্যালসিয়াম: ২৭ মিলিগ্রাম
  • আয়রন: ০.৬৮ মিলিগ্রাম
  • ম্যাগনেসিয়াম: ২২ মিলিগ্রাম
  • ফসফরাস: ৪০ মিলিগ্রাম
  • পটাসিয়াম: ২৫৪ মিলিগ্রাম
  • ভিটামিন সি: ৯৭.৬ মিলিগ্রাম
  • ফ্লেট: ৪০ মাইক্রোগ্রাম (এমসিজি)
  • ভিটামিন এ: ২০ টি আন্তর্জাতিক ইউনিট (আইইউ)

কি করলে আমারা আমাদের পোস্ট আরও ভাল করতে পারি এই বিষয়ে অবশ্যই মতামত প্রকাশ করবেন।

আরও কি টাইপের পোস্ট বা ক্যটাগরি আমরা যুক্ত করতে পারি এই বিষয়ে যদি মতামত থাকে তাও ব্যাক্ত করার অনুরোধ রইল।

ধন্যবাদ।

 

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *